কোটা বাতিল, নিয়োগ হবে মেধায়: সংসদে প্রধানমন্ত্রী

সারাদেশে ছাত্ররা যেহেতু আর কোটা ব্যবস্থা চায় না সেহেতু এখন থেকে বাংলাদেশে আর কোটা ব্যবস্থা থাকবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এখন থেকে মেধার ভিত্তিতে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দেয়া হবে।

বুধবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে এ ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, যেহেতু কোটা নিয়ে এত অান্দোলন। এত কিছু। যেহেতু ছাত্ররাচায় না, তো ঠিক আছে, কোনো কোটাই থাকবে না। বিসিএস থেকে শুরু করে সব সরকারি চাকরিতে কোনো কোটা থাকবে না। সব বাতিল। এখন থেকে শুধু মেধায় চাকরি হবে।

যারা বিসিএস পরীক্ষা দেয় তারা সবাই মেধাবী। এবং যারা কোটার সুবিধা পাচ্ছে তারাও মেধাবী উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যেহেতু কোটা নিয়ে এত অান্দোলন। এত কিছু। যেহেতু তারা (শিক্ষার্থী) চায় না, তো ঠিক আছে কোনো কোটাই থাকবে না। বিসিএস থেকে শুরু করে সব সরকারি চাকরিতে কোনো কোটা থাকবে না। সব বাতিল। এখন থেকে শুধু মেধায় চাকরি হবে।

আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে সরকারপ্রধান বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসির বাসভবনে যারা হামলা করেছে তাদের খুঁজে বের করে বিচার করা হবে। তিনি বলেন, যারা ভাংচুর লুটপাটে জড়িত, তাদের বিচার হতে হবে। লুটের মাল কোথায় আছে, তা ছাত্রদেরই বের করে দিতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ রোদের মধ্যে ছাত্ররা রাস্তায় বসে আন্দোলন করছে, এটা ঠিক হচ্ছে না। তারা অসুস্থ হয়ে যেতে পারে। তাছাড়া এমনিতেই ঢাকায় যানজট লেগে থাকে সবসময়। রাস্তাঘাট বন্ধ করে ছাত্ররা আন্দোলন করছে। এতে মানুষের কষ্ট ও দুর্ভোগ হচ্ছে। যেহেতু এত কিছু হচ্ছে, তাই আর কোনো কোটাই থাকবে না। বাতিল করে দিলাম।

এ সময় কোটা পদ্ধতি বাতিল করার ঘোষণা দিয়ে আন্দোলনকারীদের ঘরে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

উল্লেখ্য, গত ১৭ ফেব্রুয়ারি কোটা সংস্কারের দাবিতে শাহবাগে মানববন্ধন করেন চাকরিপ্রত্যাশীরা। পরে আবার ২৫ ফেব্রুয়ারি মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেন তারা। ৩ মার্চের মধ্যে এই সমস্যার সমাধান দাবি করেন। সমাধান না হওয়ায় আবার আন্দোলনে নামেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here